Gardening

Gardening:

সাধারণতঃ যে সব বাড়ীতে কোন খালি

জমি থাকে না , সেখানে এই পরিকল্পনা

গ্রহণ করা হয় । অধিকাংশ জনবহুল

শহরে তাই টবে ফুলের চাষ করা হয়ে থাকে

। এতে জায়গার প্রয়ােজনের বাধার সৃষ্টি

করে না।

টবে ফুল চাষের জন্য কিরূপ মাটির প্রয়ােজন ?

দো – আঁশ মাটি , কম্পােষ্ট সার , বালি

একসাথে মিশিয়ে নিয়ে , প্রতি টবে দু ’

চামচ সুপার ফসফেট মিশিয়ে ঐ সার

মিশ্রিত মাটির দ্বারা টবগুলাে পূর্ণ করলে

টবে ফুল চাষের যােগ্য মাটি হবে ।

টবে সাধারণতঃ কি কি ফুলের চাষ ভাল হয় ?
টবে প্রায় সব রকম ফুলের চাষই করা

যায় , তবে গাঁদা , সূর্যমুখী , চন্দ্রমল্লিকা ,

রজনীগন্ধা , ডালিয়া , বেল , দোপাটি

প্রভৃতি ফুলের চাষ ভাল হয় ।

টবে ফুল চাষের জন্য কেন মাটিতে
কম্পােস্ট সার ও বালি মিশ্রিত করা হয় ?

কম্পােস্ট সার ও বালি মাটিকে আলগা

রাখে । এছাড়া মাটিতে জল ধারণের

ক্ষমতা বাড়ায় , মাটির তাপমাত্রা বজায়

রাখতে সাহায্য করে এবং মাটির ভিতর

বায়ু চলাচলের সুযােগ করে দেয় ।

টবের নীচে ছিদ্র রাখার কারণ কি ?

টবে যাতে প্রয়ােজনের অতিরিক্ত জল

জমতে না । পারে , সেইজন্য একটি করে

ছিদ্র রাখা হয় । এই ছিদ্রপথে জল বেরিয়ে

যায় ।

টবে ফুল চাষ করলে কি সুবিধা হয় ?

টবে ফুল চাষ করলে প্রয়ােজন মত রৌদ্র ,

জল , ঝড় , ও বৃষ্টির হাত থেকে রক্ষা

করবার জন্য টবগুলি এক জায়গা থেকে

অন্য জায়গায় সরিয়ে নেওয়া যায় । অল্প

জায়গায় বেশী ফুল ফোটানাে যায় এবং

রক্ষণাবেক্ষণেরও সুবিধা হয় । তাছাড়া

শহরের বাড়ীর ঘরের বারান্দা , সিঁড়ি ,

ঘরের বাইরে বা ভিতরে , উৎসবের আসরে

টবগুলি ব্যবহার করা যায় ।

Leave a Reply